রাজনী’তির শি’কার হচ্ছি, সু’প্রিম কো’র্টে রিয়া

অভিনেতা সুশান্ত সিংহ রাজপুতের অস্বা’ভাবিক মৃ’ত্যু নিয়ে বি’স্ফোরক অভি’যোগ করলেন তাঁর দে’হ নিয়ে যাওয়া অ্যাম্বুল্যান্সের এক জন

অ্যা’টেনডেন্ট। সোমবার একটি টেলিভিশন চ্যানেলকে তিনি জানিয়েছেন, হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময়ে সুশান্তের দে’হ হলুদ হয়ে গিয়েছিল।
তাঁর আরও দাবি, সুশান্তের গ’লার সামনের দিকেই শুধু ফাঁ’সের দাগ ছিল।

কেউ আ’ত্মহ’ত্যা করলে এমনটা হতে পারে না।প্রয়াত অভিনেতার হাঁটু দু’টি মোড়া ছিল এবং সেখানে দা’গ ছিল বলেও জানিয়েছেন তিনি। তাঁর দাবি, আ’ত্মহ’ত্যার ঘটনায় কোনও ব্যক্তির মুখ থেকে ফে’না বেরিয়ে আসে। কিন্তু সুশান্তের ক্ষেত্রে তিনি এমনটা দেখেননি।

এরই মধ্যে অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী আজ সুপ্রিম কোর্টে হলফ’নামা দিয়ে জানিয়েছেন, তাঁকে ‘রাজনী’তির ব’লির পাঁঠা’ করার চেষ্টা হচ্ছে। রিয়ার অভি’যোগ, সুশান্তের মৃ’ত্যুর পিছনে কোনও চক্রান্তের তথ্য এখনও সামনে না এলেও সংবাদমাধ্যম ইতিমধ্যেই তাঁকে দো’ষী সা’ব্যস্ত করে ফেলেছে।

সুশান্তের মৃ’ত্যুতে সিবি’আই তদ’ন্তের বিষয় নিয়ে কাল সুপ্রি’ম কো’র্টে শু’নানি রয়েছে। তার আগে শীর্ষ আদা’লতের সামনে রিয়ার আর্জি, তদ’ন্তের ভার সিবি’আইকে দেওয়ার ব্যাপারে শীর্ষ আ’দালত যদি সম্মত হয়, তা হলেও পট’না নয়, তদ’ন্তকে মুম্বইয়ের আদালতের এক্তিয়ারে রাখা হোক।

সুশান্তের অ্যাকাউন্ট থেকে ১৫ কোটি টাকা সরানোর অভি’যোগের ভিত্তিতে রিয়াকে আগেও জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল ইডি। আজ ভাই শৌভিক ও বাবা ইন্দ্রজিৎ চক্রবর্তীর সঙ্গে ইডির দফতরে ঢুকতে দেখা যায় রিয়াকে। সুশান্তের বিজনেস ম্যানেজার শ্রুতি মোদীকেও ডেকে পাঠানো হয়।

দুপুরে ইডি দ’ফতরে পৌঁছন সুশান্তের রুমমেট সি’দ্ধার্থ পিঠানি। ইডি সূত্রের দাবি, অভিনেত্রীর রোজগার, খরচ ও বিনিয়োগের ভিতরে অসঙ্গ’তি নিয়ে জ’বাব চাইছেন তদ’ন্তকারীরা।

এ দিকে, রিয়ার হলফ’নামায় বলা হয়েছে, সুশান্তের মৃ’ত্যুর ঘটনা যে হে’তু মুম্বইয়ে ঘটেছে, তাই সিবিআই তদ’ন্তের জন্য বিহারের মুখ্যম’ন্ত্রী নীতীশ কুমারের আর্জি আই’নসঙ্গত নয়। কারণ, যেখানে অপরা’ধের ঘটনা ঘটেছে, সংশ্লিষ্ট রাজ্য সরকার কিংবা আদালত চাইলেই সিবি’আই ত’দন্ত হতে পারে।

কিন্তু এ ক্ষেত্রে কোনওটাই ঘটেনি। মহারাষ্ট্র সরকারও সি’বিআই তদ’ন্তের বিরো’ধিতা করছে বলে জানানো হয়েছে। রিয়ার দাবি, সুশান্তের দুঃ’খজনক মৃ’ত্যুর ঘটনা নিয়ে বিহার ভোটের আগে বিরাট ভাবে হইচই শুরু হয়েছে। জানা যাচ্ছে, পটনায় তাঁর বিরু’দ্ধে এফ’আইআরের পিছনেও মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের হাত রয়েছে।

তাঁর বিরু’দ্ধে মিডিয়া ট্রায়াল চলছে বলে অভি’যোগ এনে হলফ’নামায় টুজি কে’লেঙ্কারি ও আরু’ষি হ’ত্যার প্রসঙ্গ টেনে এনেছেন রিয়া। সুশান্তের মৃ’ত্যু-বি’তর্কে জড়িয়ে পড়েছেন শিব’সেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত।

দলের মুখপত্রে তিনি লিখেছিলেন, বাবার দ্বিতীয় বি’য়ের কারণে সুশান্ত মানসিক চাপের মধ্যে ছিলেন। পরিবারের সঙ্গে অভিনেতার ভাল সম্প’র্ক ছিল না। এর পরেই সুশান্তের আত্মীয় ও বিহারের বি’জেপি বিধায়ক নীরজকুমার সিংহ আজ বলেছেন, রাউত ক্ষ’মা না চাইলে তাঁর বি’রুদ্ধে মানহা’নির মা’মলা করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *