বউয়ের গয়না বেচে ব্যবসা শুরু, এখন ৯০০ কোটির মালিক!

জীবনযু’দ্ধের লড়াইয়ে দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে। কোনো উপায়ান্তর দেখছিলেন না। সাফল্যের চূড়ায় ওঠার দৃঢ় মবোবল। এতে দু’টি বি’ষয় পরিষ্কার, জীবনে ঘুরে দাঁড়াতে আ’ত্মবিশ্বা’স ও জেদই শেষ কথা।

সব সফল পুরুষের পেছনেই একজন নারী থাকে। এমনই এক নারী যার পুরো নাম ভেঙ্কটকম স্থনু সুব্রমানি। দুনিয়ায় তিনি ভিএসএস মানি নামেই পরিচিত। লোকাল সার্চ ইঞ্জিন JustDial-এর কর্ণধার।

বর্তমানে সংস্থাটির ৯০০ কোটি টাকা রয়েছে। বিশ্বের অন্যতম ধনকুবের। কিন্তু জানেন কি, ভিএসএস মানি ব্যবসা শুরু করেছিলেন কার্যত কপর্দকশূন্য অবস্থায়। মূলধন বলতে ছিল, স্ত্রীর বিয়েতে পাওয়া সব গয়না ও বাড়ির আসবাব বেচে নগদ ৫০ হাজার টাকা জোগাড়।

JustDial মানেই মুশকিল আসান। ভারতের যেকোনো মোবাইল নম্বর, এসএমএস, ওয়েবের খোঁজ করলেই তার যাব’তীয় ডেটাবেস চলে আসে আপনার সামনে। মূলধনের নিরিখে বম্বে স্টক এক্সচেঞ্জ নথিভুক্ত। এহে’ন JustDial-এর মালিকের সংগ্রাম যেকোনো সময় উদ্বু’দ্ধ করার মতোই।

ছেলেবেলা কে’টেছে কলকাতাতেই। জীবিকার সন্ধানে বিয়ের পরেই সংসার নিয়ে পাড়ি দেন মুম্বই। ১৯৯৬ সালে মুম্বইয়ে একটি গ্যারেজ ভাড়া করে শুরু করেন ব্যবসা। সেই গ্যারেজটি কিনতেই চলে যায় স্ত্রীর সব গয়না। একটি কম্পিউটার। ৬ জন কর্মী। আর স’ঙ্গী, দিবারাত্রি কঠিন পরিশ্রম, আ’ত্মবিশ্বা’স।
JustDial-এর বর্তমান নম্বর ৮৮৮৮৮৮৮৮৮৮। এই ইউনিক নম্বরটি একসময় ছিল মুম্বাইয়ের কান্দিভলি এক্সচেঞ্জের। ১৯৯৬ সালে নম্বরটি কিনতে চেয়েছিলেন মানি। দাম ছিল ১৫ হাজার টাকা। কিনতে পারেননি তিনি। ১৫ হাজার টাকা শেষ মুহূর্তে জোগাড় করে উঠতে পারেননি।

অভাবের তাড়নায় শেষ পর্যন্ত কোম্পানি বন্ধ করে পাত্রপাত্রির কনসালটেন্সি এজেন্সি খোলেন। কিন্তু মন থেকে মুছে ফেলেনিন JustDial-এর স্বপ্ন। স্ত্রী অনিতা পাশে দাঁড়ান। বলেন, ভয় নেই, এগিয়ে যাও, আমি আছি।

ফের শুরু হয় যু’দ্ধ। অনিতা ব্যবসার কিছুই জানতেন না। কিন্তু স্বামীর জন্য দিনরাত পরিশ্রম করে ধীরে ধীরে সার্চ ইঞ্জিনের ব্যবসা সম্পর্কে ওয়াকিবহাল হয়ে যান। বর্তমানে ভিএসএস মানির সাম্রাজ্য দুনিয়াজোড়া। ফোর্বসের বিচারে অন্যতম ধনকুবের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *