ঘটনার পেছনেও অনেক ঘটনা থাকে : বুবলি

সুপাস্টার শাকিব খানকে জড়িয়ে চিত্রনায়িকা শবনম বুবলিকে নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে মিডিয়াপাড়ায় নানা গুঞ্জন চলছে। অবশেষে আড়াল ভে’ঙে মুখ খুললেন বুবলি।একটি জাতীয় দৈনিককে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে সবকিছুকে ‘গু’জব’ বলে উড়িয়ে দিলেন তিনি।

বুবলি বলেন, চলচ্চিত্র জুটি নিয়ে গু’জব বা গু’ঞ্জ’ন নতুন কিছু নয়। আর এটাই একটা জুটির সার্থকতা। প্রযুক্তির এই যুগে ইন্টারনেট, ফেসবুক, ইউটিউবসহ কত কত চ্যানেল নিয়ে মানুষ ব্যস্ত, তার ওপর তাদের নিজেদের জীবন তো আছেই। তাও যে শাকিব খান আর বুবলি নিয়ে মানুষ এত সময় ব্যয় করে এটা আমাদের জন্য বাড়তি পাওনা।

আমরা (আমি ও শাকিব খান) কিন্তু কেউই কোথাও কোনো স্টেটমেন্ট দিই না বা কোনো অনুষ্ঠানে কেউ কাউকে নিয়ে কথা বলে আলোচনায় থাকতে চাই না। এমনকি কোনো ভিডিও ধারণ করেও দুজন ভাইরাল হতে চেষ্টা করছি না।

যে যার মতো পেশাদারি মনোভাব নিয়ে কাজ করছি। মানুষ হয়তো কোনো একটা ক্যামিস্ট্রি আমাদের মধ্যে খুঁজে পান, তাই হয়তো এমন করেন। আমি এ গু’ঞ্জ’নটাকে পজিটিভভাবেই দেখি।

তিনি বলেন, আমি গত পাঁচ বছর ধরে ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করছি। কখনো কেউ বলতে পারবে না কাউকে অ’সম্মান করেছি, শুটিং সেটে দেরি করে গেছি, কখনো নায়িকাগিরি দেখিয়ে কোথাও কোনো বাড়তি সুবিধা নিয়েছি। এছাড়া অন্য কোথাও কোনো কিছুতে আমাকে পাওয়া গেছে বা রিউমার আছে যা নিয়ে গসিপ করা যাবে।

দেখুন, খুব ছোটবেলা থেকেই আমি অনেক সিনিয়রের সঙ্গে প্রাইম টাইম নিউজ পড়তাম একটি জনপ্রিয় বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে। আমাকে ক্লাসে যেতে হতো নিউজের ব্যাগ পাশে রেখে, কারণ ক্লাস শেষ করেই অফিসে এসে নিউজ পড়তাম।

অফিসে এসে নিউজের প্রস্তুতিও নিতাম আর পাশাপাশি পরীক্ষার পড়াও একটু দেখে নিতাম। এমনকি যেদিন প্রথম শাকিব খানের সঙ্গে মিটিং ছিল ছবি নিয়ে, সেদিনও আমি নিউজ শেষ করে মিটিংয়ে গিয়েছিলাম।

আবার মিটিং অর্ধেক রেখেই তাদের সরি বলে আমাকে ফিরতে হয়েছিল। কারণ ক্লাসের সময় হয়ে গিয়েছিল। এভাবেই আমি কাজ আর পড়ালেখা ব্যালেন্স করে আসছি। তাই ডানে-বামে অন্যকিছু ভাবার সময় নেই আমার। আমি ভাবতেও চাই না।

এই ব্যালেন্সের মাঝে একজন মানুষকে (শাকিব খান) নিয়েই কিছু কথা হয়, আসলে গু’জ’ব তো গু’জ’বই, যা মানুষ নানাভাবে নিজের মতো বলে। কিন্তু ঘটনার পেছনেও অনেক ঘটনা থাকে আর সময় এমন একটা জিনিস যা কিনা অনেক কিছুই পরিষ্কার জানিয়ে দেয়। তাই গু’জ’বে কান না দেয়াই ভালো।

‘বীর’ সিনেমায় শারীরিক গড়ন নিয়ে বুবলি বলেন, ‘বীর’ সিনেমার জন্য আমাকে কিছু ওজন বাড়াতে হয়েছিল। কারণ আমার চরিত্রটিই ছিল খুব সাধারণ একটি মেয়ের, যাকে প্রত্যন্ত একটি গ্রাম থেকে শহরে নিয়ে আসা হয়।

চরিত্রের জন্য আমাদের ওজন বাড়ানো কমানো সবই করতে হয়। সেজন্য কারো কাছে অন্যরকম লাগতে পারে। চিন্তার কারণ নেই, কিছুদিন পরেই পরের সিনেমার জন্য আবার ওজন কমিয়ে আগের বুবলি হয়ে আসছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *