এক ধনী বেক্তি ঘোষণা করলেন যে বেক্তি তার কুমির চাষের পুকুরটি সাঁতরে পার হবে, তাকে তার কন্যার সাথে বিয়ে দিবেন

এক জন বিরাট ধনী তার বাগান, বাড়ির পেছনের পুকুরে কুমির পুষতেন।একদিন তিনি তার বাড়িতে বিশাল এক পার্টি দিলেন। নানা জায়গা থেকে বহু লোক এলো সেই পার্টিতে। প্রচুর ম’দ্যপান আর খাওয়া দাওয়ার পরে পুরাতন কালের মহারাজদের স্টাইলে ধনী লোকটি ঘোষণা করলেন, যে সাহস করে কুমির ভর্তি পুকুরটি সাঁতরে পার হতে পারবে তাকে তিনি হয় এক কোটি টাকা দেবেন না হয় তিনি তার কাছে তার সুন্দরী কন্যাকে সম’র্পণ করবেন।

কথাটি শেষ না হতেই ঝপাং করে একটি শব্দ। দেখা গেল এক জন লোক প্রান পণে সাঁতরাচ্ছে আর তার পিছনে তিনটা কুমির তাড়া করছে। সবাই পাড় থেকে লোকটা কে অজস্র উৎসাহ জুগিয়ে চলল।লোকটা অবশ্যই ভালই সাঁতার কাটে তার উপর প্রা’ণের মায়া। কোন মতে হাঁপাতে হাঁপাতে অক্ষত অবস্থায় অন্য পাড়ে উঠলো।ধনী লোকটি এগিয়ে এসে লোকটির হাত ধরে বললেন, আমি বিশ্বা’স করতে পারিনি এত সাহস দেখানোর মত ক্ষমতা কারও থাকতে পারে।

ইয়ং ম্যান তুমি কি চাও?আমা’র কন্যা, -না এক কোটি টাকা?

লোকটি তখনও হাঁপাচ্ছে। হাঁপাতে হাঁপাতে বলল, আমি আপনার কন্যাকেও চাইনা,আপনার এক কোটি টাকাও পেতে চাই না।

আমি শুধু জানতে চাই কোন শালায় আমা’রে, ধাক্কা মা’রছে.

দুনিয়ায় সকল ভ’য় থেকে মুক্ত- আল্লাহর ভ’য় মানুষকে নেক আমল ছাড়াও জান্নাতে নিয়ে যাবে। কেননা আল্লাহ তাআলাই বান্দাকে লক্ষ্য করে বলেছেন, ‘তোম’রা আমা’র রহমত থেকে নিরাশ হইও না।’ কিন্তু সৃষ্টি তথা মানুষের ভ’য়ে আল্লাহর সঙ্গে নাফরমানি করা যাবে না।

সৃষ্টি যাবতীয় ভ’য় থেকে মুক্ত থাকতে রয়েছে আল্লাহর গুণবাচক নামের কার্যকরী আমল।

আল-মুগনি (اَلْمُغْنِى) আল্লাহ তাআলার গুণবাচক নামসমূহের একটি। এ নামের আমলে দুনিয়ার যাবতীয় সৃষ্টি ভ’য় থেকে মুক্ত থাকা যায়। শুধু মহান আল্লাহর ভ’য়েই রয়েছে স্বাচ্ছন্দ্যে ইস’লামের বিধি-বিধান পালনসহ সুন্দর জীবন-যাপনের সূবর্ণ সুযোগ। তা ছাড়া প্রিয় নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘আল্লাহ তাআলার ৯৯টি গুণবাচক নাম আছে। যে ব্যক্তি এ গুণবাচক নামগুলোর জিকির (আমল) করবে; সে জান্নাতে যাবে।’ আল্লাহর গুণবাচক নাম (اَلْمُغْنِى) ‘আল-মুগনি’-এর জিকিরের আমল ও ফজিলত তুলে ধ’রা হলো-

উচ্চারণ : ‘আল-মুগনি’

অর্থ : ‘যাকে ইচ্ছা তিনি মুখাপেক্ষীহীন করেন’

ফজিলত ও আমল– যে ব্যক্তি নিয়মিত আল্লাহ তাআলার গুণবাচক নাম (اَلْمُغْنِى) ‘আল-মুগনি’-এর আমল করবে। সে ব্যক্তি দুনিয়ার কোনো সৃষ্টিকে ভ’য় পাবে না।ওই ব্যক্তিকে ধারাবাহিক ভাবে ১০ জামআ পর্যন্ত এ গুণবাচক নামের আমল করতে হবে। প্রতিদিন ১ হাজার বার এ গুণবাচক নামের জিকির করে আল্লাহর কাছে সাহায্য প্রার্থনা করতে হবে।

যারা এ নিয়মিত এ আমল করবে আল্লাহ তাআলার ইচ্ছায় তারা দুনিয়ার কোনো সৃষ্টিকেই ভ’য় পাবে না। আল্লাহ তাআলাই তাদেরকে সব ভ’য় থেকে হেফাজত করবেন। আল্লাহ তাআলা মু’সলিম উম্মাহকে তাঁর এ সুন্দর ও ছোট্ট গুণবাচক নাম (اَلْمُغْنِى) ‘আল-মুগনি’-এর আমল করার মাধ্যমে দুনিয়ার যাবতীয় ভ’য় থেকে মুক্ত থাকার তাওফিক দান করুন। আমিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.